পাঁচ উৎপাদনকারী সংস্থা টিকার ১৮৮ কোটি ডোজ দেবে, সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র

CORONA-VACCINE.jpg

Onlooker desk: অন্তত পাঁচটি উৎপাদনকারী সংস্থার থেকে টিকার ১৮৮ কোটি ডোজ পাওয়া যাবে। শনিবার সুপ্রিম কোর্টে এ কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এতে এ বছরের মধ্যে দেশের সমস্ত প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকের টিকাকরণ সম্পন্ন হবে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, দেশের ১৮ ঊর্ধ্ব জনসংখ্যার মাত্র ৫.৬ শতাংশ টিকার দু’টি ডোজ পেয়েছেন।
শনিবার সুপ্রিম কোর্টে একটি হলফনামা জমা দিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রকের অতিরিক্ত সচিব মনোহর আগনানি। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, দেশে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে জনসংখ্যা ৯৩-৯৪ কোটি। এঁদের সকলকে টিকার দু’টি করে ডোজ দিতে লাগবে ১৮৬ থেকে ১৮৮ কোটি টিকার ডোজ। এর মধ্যে ৫১.৬ কোটি ডোজ ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে পাওয়া যাবে। বাকি থাকবে ১৩৫ কোটি।
কেন্দ্রের টিকানীতি নিয়ে সুর্দিষ্টি ভাবে কিছু প্রশ্ন তোলে সুপ্রিম কোর্ট। তার জবাবেই ৩৭৫ পাতার হলফনামা জমা দিয়েছে কেন্দ্র। এই ১৩৫ কোটি কী ভাবে জোগাড় হবে, সে সংক্রাম্ত রোডম্যাপ পেশ করেছে তারা।
হলফনামায় জানানো হয়েছে, রুশ ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি-কে ডিসিজিআই ইমার্জেন্সি ব্যবহারের ছাড়পত্র দিয়েছে। এ নিয়ে এখন দেশে কথাবার্তা চলছে। এ ছাড়া দেশীয় ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা যেমন বায়োলজিক্যাল ই এবং জাইডাস ক্যাডিলার টিকার শেষ পর্বের ট্রায়াল চলছে। জাইডাস ক্যাডিলা ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের জন্য টিকা তৈরির কাজ করছে। শীঘ্রই তা বাজারে চলে আসবে বলে সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছে সরকার।
এ ছাড়া ওয়াক-ইন টিকাকরণেও ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। মূলত গ্রামাঞ্চলের সমস্যার কথা মাথায় রেখে কোউইন প্ল্যাটফর্মও আর বাধ্যতামূলক রাখা হয়নি। গ্রামের মানুষ নিকটবর্তী টিকাকরণ কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নিতে পারেন। ২৫ জুন পর্যন্ত ভ্যাকসিনের ৩১ কোটি ডোজ দেওয়া হয়েছে দেশ জুড়ে। পাশাপাশি জানানো হয়েছে, গ্রামাঞ্চলের ৫৬.২৪ শতাংশ মানুষ ইতিমধ্যেই টিকা নিয়েছেন।
কেন্দ্রের দাবি, তাদের টিকা নীতি সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে করা হচ্ছে। তা এক জায়গায় স্থির হয়ে নেই। গত ২১ জুন থেকে যে ১৮ ঊর্ধ্ব সকলকে বিনামূল্যে টিকা দেওয়া হচ্ছে, তা জানানো হয়েছে হলফনামায়। সুপ্রিম কোর্ট আঘামী ৩০ জুন তা বিবেচনা করে দেখবে।
প্রসঙ্গত, রবিবার ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে সকলকে টিকা নিতে পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এ প্রসঙ্গে ১০০ ছুঁইছুঁই মায়ের উদাহরণ দিয়েছেন। কারণ এই বয়সে তাঁর মা টিকার দু’টি ডোজই নিয়েছেন। কাউকে নেতিবাচক গুজবে কান দিতে বারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top