দৈনিক সংক্রমণ ৩৫ হাজার, চলতি হারে বছরশেষে বড়জোর ৩৬ শতাংশ টিকাকরণ

India-corona.jpg

Onlooker desk: গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে (India) করোনায় (Corona) আক্রান্ত হলেন ৩৫ হাজার ১৭৮ জন। অথচ মঙ্গলবারই দেশে নতুন করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ১৬৬। ১৫৪ দিন বাদে সর্বনিম্ন। একদিনে ১০ হাজারেরও বেশি বৃদ্ধি পেল সংক্রমণ। মৃত্যু অবশ্য মঙ্গলবারের তুলনায় কমেছে বুধবার। এ দিন গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গিয়েছেন ৪৪০ জন।
ভারতে (India) বর্তমানে করোনা (Corona) রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৬৭ হাজার ৪১৫। গত ১৪৮ দিনে যা সর্বনিম্ন। এ পর্যন্ত মোট সংক্রমণের ১.১৪ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় রোগমুক্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ৩৭ হাজার ১৬৯ জন। যার সূত্রে এ পর্যন্ত মোট রোগমুক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩ কোটি ১৫ লক্ষ। রোগমুক্তির হার বর্তমানে ৯৭.৫২ শতাংশ। গত বছর মার্চের পর সর্বনিম্ন।
সাপ্তাহিক পজিটিভিটির হার ১.৯৫ শতাংশ। গত ৫৪ দিন ধরে ৩ শতাংশের বিপজ্জনক মাত্রার কম রয়েছে তা। দৈনিক পজিটিভিটি রেট ১.৯৬ শতাংশ। গত ২৩ দিন ধরেই তা ৩ শতাংশের কম রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় টিকার ৫৫ লক্ষ ডোজ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার গত ২৪ ঘণ্টায় যা ছিল ৮৮ ল—ের বেশি।
এ পর্যন্ত মোট ৫৬.১ কোটি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে দেশজুড়ে। টিকার (vaccine) ডোজের সাপ্তাহিক গড় বর্তমানে ৪৩ লক্ষ। গত জুনের পর সর্বাধিক। তখন ছিল দৈনিক ৪৫ লক্ষ।
তবে এই হারে চলতি বছরের মধ্যে দেশের প্রাপ্তবয়সক জনসংখ্যার মাত্র ৩৬ শতাংশকে টিকা দেওয়া যাবে। সরকার যে অন্তত ৬০ শতাংশকে টিকাকরণে যুক্ত করার লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করেছিল, তা সম্পন্ন হওয়া সম্ভব নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। সেই লক্ষ্যে পৌঁছতেহলে দৈনিক ১০০ ডোজেরও বেশি টিকা দিতে হবে। কিন্তু বাস্তবে টিকাকরণের সংখ্যা তার তুলনায় অনেকটাই কম।
এ দিকে, কেরালা এখনও করোনা (Corona) সংক্রমণের নিরিখে দেশের ভরকেন্দ্র। গত ২৪ ঘণ্টায় কেরালায় ২১ হাজারেরও বেশি সংক্রমণের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। সোমবার যা ছিল ১২ হাজার ২৯৪। দু’দিনে এতখানি বৃদ্ধিতে বেড়েছে উদ্বেগ। কেরালায় বর্তমানে ১.৭৫ লক্ষ করোনা রোগী।
তামিলনাড়ুতে আবার বাসিন্দাদের মধ্যে টিকার প্রতি অনীহা দেখা যাচ্ছে। মে মাসে দৈনিক ৩৬ হাজারের জায়গায় এখন তামিলনাড়ুতে দৈনিক দু’হাজারেরও কম সংক্রমণ ধরা পড়ছে। সোমবার সেখানে টিকার (vaccine) ৪ লক্ষের বেশি ডোজ দেওয়া হয়েছে। তবে গত সপ্তাহে টিকার ডোজের গড় ছিল ২.২৩ লক্ষ। মোট বাসিন্দার মাত্র ৩৭ শতাংশ একটি এবং ৮.২ শতাংশ টিকার দু’টি ডোজ নিয়েছেন।
মঙ্গলবার দিল্লির স্বাস্থ্য দপ্তর প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, রাজধানীতে নতুন করে ৩৮টি করোনা সংক্রমণের কথা জানা গিয়েছে। পজিটিভিটির হার ০.০৭ শতাংশ। মারা গিয়েছেন ৪ জন। সোমবার দিল্লিতে ২৭টি সংক্রমণের খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল। কারও মৃত্যু হয়নি।
অসমে আবার কার্ফুর সময় শিথিল করা হয়েছে। আন্তঃজেলা যাতায়াতে নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেওয়া হয়েছে। তবে কামরূপ মেট্রোপলিটান ডিস্ট্রিক্টে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় অসমে ৭৪১টি নতুন সংক্রমণ ও ১১টি মৃত্যুর হদিস পাওয়া গিয়েছে।
এ দিকে, র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট কিট রপ্তানিতে সোমবার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্র। তৃতীয় ঢেউয়ের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top