শর্তসাপেক্ষে বাড়িতেই করোনা-পরীক্ষায় সবুজ সঙ্কেত আইসিএমআর-এর

74690A7C-8CA1-4C2F-AF35-E6340D50487E.jpeg

Onlooker desk: বাড়িতে র‍্যাপিড অ্যাট্নিজেন কিটে কোভিড পরীক্ষায় বুধবার সবুজ সঙ্কেত দিলইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) তবে সকলেই তা নির্বিচারে ব্যবহার করতেপারবেন না। কারা, কী ভাবে কিট ব্যবহার করবেন, সে সংক্রান্ত বিস্তারিত গাইডলাইন দিয়েছে কাউন্সিল।যাঁদের উপসর্গ আছে বা যাঁরা আরটিপিসিআরে পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া কারও সরাসরি সংস্পর্শেএসেছেন, কেবল তাঁরাই ভাবে বাড়িতে টেস্ট করতে পারবেন। নির্বিচার টেস্টিং ঠিক নয় বলে জানিয়েছেআইসিএমআর। এই পরীক্ষায় পজিটিভ এলে দ্বিতীয় বা পরীক্ষার দরকার নেই। তবে উপসর্গযুক্ত কারওযদি টেস্টে নেগেটিভ আসে, তা হলে সঙ্গে সঙ্গে আরটিপিসিআর করানো দরকার।

কোভিসেল্ফটিএম (প্যাথোক্যাচ) কোভিড১৯ ওটিসি অ্যান্টিজেন এলএফ কিটটি তৈরি করেছে পুনেরমাইল্যাব ডিসকভারি সলিউশনস লিমিটেড। সংক্রান্ত একটি অ্যাপ গুগল প্লে স্টোর এবং অ্যাপলস্টোরে রয়েছে। তা ডাউনলোড করে, সেখানে নির্দিষ্ট করে দেওয়া পদ্ধতি অনুযায়ী টেস্ট করতে হবে বলেআইসিএমআর জানিয়েছে। তাদের বক্তব্যটেস্টিং প্রক্রিয়ার একটি সার্বিক গাইড ওই মোবাইল অ্যাপ।সেটাই রোগীর পজিটিভ বা নেগেটিভ রেজাল্ট জানাবে। টেস্ট স্ট্রিপের ছবি একই মোবাইলে তুলে রাখতেহবে ব্যবহারকারীকে। এই তথ্য আইসিএমআর কোভিড১৯ টেস্টিং পোর্টালর সার্ভারে অন্য সব টেস্টিংতথ্যের সঙ্গে সংরক্ষিত থাকবে। রোগীর পরিচয় গোপন রাখা হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় এই সংস্থা।

বাড়িতে ভাবে করোনা পরীক্ষা করা গেলে ল্যাবরেটরিগুলির উপর থেকে চাপ কিছুটা কমবে। এখন একএকদিনে ২০ লক্ষেরও বেশি টেস্ট হচ্ছে।তবে সেটাও দেশের টেস্টিং ক্ষমতার সর্বোচ্চ নয়। দেশে একদিনেসর্বাধিক ৩৩ লক্ষ টেস্ট হতে পারে। এপ্রিল থেকে টেস্টিং ৭৫ শতাংশ বাড়লেও সংক্রামিতের হারবেড়েছে ৫৩১ শতাংশ। তাই টেস্ট বাড়ানোর বিকল্প নেই বলে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top