ডেল্টাই শেষ নয়, ভাইরাস আরও ভোল বদলাবে: হু

Delta-Plus.jpg

Onlooker desk: ডেল্টা (Delta) ভ্যারিয়ান্টেই শেষ নয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) (WHO) জানিয়েছে, ডেল্টা সারা বিশ্বের জন্য একটি সতর্কবাণী। আরও ভোলবদলের আগে যে ভাবেই হোক ভাইরাসের বিনাশ ঘটাতে হবে।
ভারতে প্রথম হদিস মেলে ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টের। এখন ১৩২টি দেশে ডেল্টা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বলে হু (WHO) জানিয়েছে।
সংস্থার ইমার্জেন্সিস ডিরেক্টর মাইকেল রায়ান একটি সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, ‘ডেল্টা (Delta) একটি সতর্কতা। ভাইরাস যে ভোলবদল করছে, তার সতর্কতা। পাশাপাশি আরও বিপজ্জনক ভাইরাস আসার আগে যাতে আমরা পদক্ষেপ করি, তারও সতর্কবাণী এই ডেল্টা (Delta) ।’
হু (WHO) এর প্রধান তেদ্রোস আধানম ঘেব্রেইউসুসের সংযোজন, ‘এ পর্যন্ত চারটি ভ্যারিয়ান্ট অফ কনসার্ন এসেছে। এবং ভাইরাস ছড়াতে থাকলে আরও আসবে।’ তিনি জানান, হু (WHO)-এর ছ’টির মধ্যে পাঁচটি অঞ্চলে গত চার সপ্তাহে সংক্রমণ ৮০ শতাংশ বেড়েছে।
ডেল্টার জেরে বহু দেশেই পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে। তবে রায়ান জানিয়েছেন, দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা, হাত ধোয়া বা স্যানিটাইজ করা, খোলামেলা জায়গা ইত্যাদির মাধ্যমে তাকে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হয়েছে। সেই সঙ্গে কাজে আসছে টিকাকরণ।
হু (WHO)-এর এই আধিকারিক বলেন, ‘ভাইরাস আরও সবল হয়েছে, দ্রুততর হয়েছে। কিন্তু আমাদের প্রতিরোধও কাজ করছে। এই গেম প্ল্যানই আরও বেশি সক্রিয় ভাবে প্রয়োগ করতে হবে।
এ দিকে আমেরিকার সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) জানিয়েছে, ডেল্টা (Delta) প্রজাতি চিকেন পক্সের মতো ছোঁয়াচে। শুক্রবার নিউ ইয়র্ক টাইমসের একটি রিপোর্টে এই সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।
ডেল্টার জেরে আমেরিকা, চিন, ইংল্যান্ড-সহ বিভিন্ন দেশে পরিস্থিতি লাগামছাড়া আকার নিয়েছে। চিনের স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, গত কয়েক মাসের মধ্যে দেশে এখন সবচেয়ে ভয়ঙ্কর চেহারা নিয়েছে সংক্রমণ। শনিবার ফুজিয়ান প্রদেশ ও চোংকিং-এ নতুন করে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। নতুন করে অন্তত ২০০টি সংক্রমণের হদিস পাওয়া গিয়েছে।
মার্কিন রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ডেল্টা (Delta) এতটাই ভয়ঙ্কর যে টিকাও সব সময় প্রতিরোধ না-ও দিতে পারে। তাই মাস্ক পরাই একমাত্র পথ। সিডিসি আগে জানিয়েছিল, টিকা নেওয়া থাকলে ঘরের ভিতরে মাস্ক না-পরলেও চলবে। কিন্তু সেই নিয়ম বদল করা হয়েছে। তবে টিকায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা খারিজ করা না গেলেও রোগের ভয়াবহতা অনেকখানি কমানো সম্ভব। গুরুতর অসুস্থতা, হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যু অনেকখানি ঠেকানো সম্ভব বলে সিডিসি জানিয়েছে।
সিডিসি-র রিপোর্টে বলা হয়েছে, ডেল্টা (Delta) প্রজাতি মার্স, সার্স, ইবোলা, সাধারণ ঠান্ডা লাগা, স্মল পক্সের চেয়েও বেশি সংক্রামক। সিডিসি-র অধিকর্তা রশেল ওয়ালেনস্কি দ্য টাইমসকে জানিয়েছেন, গবেষণায় দেখা গিয়েছে, টিকাপ্রাপ্তদেরও নাকে ও গলায় বিপুল পরিমাণ ভাইরাস বাসা বেঁধে থাকে।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top