রাতভর ভারী বৃষ্টি, মুম্বইয়ে একাধিক বাড়ি ধসে মৃত অন্তত ১৪, নিখোঁজ অনেকে

WhatsApp-Image-2021-07-18-at-9.04.50-AM.jpeg

চলছে উদ্ধারকাজ

Onlooker desk: ভারী বৃষ্টিপাতে বাড়ি ধসে অন্তত ১৪ জনের মৃত্যু হল মুম্বইয়ে।
শনিবার রাত থেকে প্রবল বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে মুম্বইয়ে। রবিবার সকালেও তা থামেনি। এরই মধ্যে মুম্বইয়ের চেম্বুর ও ভিখরোলিতে নিজেদেরই বাড়ি ধসে প্রাণ হারান কমপক্ষে ১৪ জন। শহরে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে না-বেরোনোর পরামর্শ দিয়েছে সরকার।
রবিবার সকালে ভিখরোলির সূর্যনগরে ধসে পড়ে একটি জি প্লাস ১ বাড়ি। সেই ঘটনায় প্রাণ হারান তিন জন। বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন (বিএমসি) এ কথা জানিয়েছে। তাঁদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
তবে চেম্বুরের ক্ষতি আরও বড়। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী এ প্রসঙ্গে একটি বিবৃতি জারি করেছে। সেখানে তারা জানিয়েছে, চেম্বুরে ৪-৫টি বাড়ি ধসের কবলে পড়েছে। উদ্ধারকাজে হাজির হয়ে প্রথমে ১০টি দেহ উদ্ধার করে স্থানীয় বিএমসি এবং দমকল। পরে এনডিআরএফ-এর দল পৌঁছে আরও এক মহিলার দেহ উদ্ধার করে।
বাহিনীর এক ইনস্পেক্টর ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে জানান, আরও প্রায় ৮ জন ধসে পড়া বাড়ির নীচে চাপা পড়ে রয়েছেন। উদ্ধারকাজ চলছে।
বিএমসি জানিয়েছে, রবিবার সকাল সাড়ে ছ’টা নাগাদ তারা এই দুর্ঘটনার খবর পায়। একটি বাড়ির দেওয়ালে বড় গাছ উপড়ে পড়ায় মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে। ১৫ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
শনিবার রাত থেকে ব্যাপক বৃষ্টিতে কার্যত ডুবে গিয়েছে মুম্বই। ওই দিন সন্ধ্যা ৮টা থেকে রাত ২টোর মধ্যে ১৫৬.৯৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। শহরের পূর্ব ভাগের মফস্সল এলাকায় ১৪৩.১৪ মিমি এবং পশ্চিম ভাগে ১২৫.৩৭ মিমি বৃষ্টিপাতের কথা জানিয়েচেন আধিকারিকরা।
একটু নিচু এলাকাগুলিতে কোমরের উপরে জল জমে গিয়েছে। যেমন চুনাভাট্টি, সিয়ন, দাদার, গান্ধী মার্কেট, চেম্বুর এবং কুরলা এলবিএস রোড। কোথাও কোথাও আস্ত গাড়ি ভেসে যেতে দেখা গিয়েছে। যেমন বোরিভালি ইস্ট। জলের ঘূর্ণিতে গাড়ি ভেসে যাওয়ার ছবি উঠে এসেছে সংবাদমাধ্যমে।
রাতভরের বৃষ্টিতে জল জমে গিয়েছে রেল লাইনে। ফলে মধ্য ও পশ্চিম রেলের সব সাবার্বান ট্রেন চলাচলই বন্ধ।
তবে ভোগান্তি ও আশঙ্কার শেষ এখনই হচ্ছে না। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছেন, আগামী ৫ দিন মুম্বইয়ে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে। ২০১০-এর পর বাণিজ্য নগরীতে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছিল ২০১৯-এ। সে বছর ২ জুলাই একদিনে ৩৭৫.২ মিমি বৃষ্টি হয়।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top