ইয়াসের দুর্যোগ কাটতে না কাটতে ভেঙে পড়া বাড়ি ও রাস্তা সংস্কার নিয়ে বিক্ষোভ

Villagers-demonstrate-in-Bhatar.jpg

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: ইয়াসের দুর্যোগ কাটতে না কাটতেই শুরু হয়ে গেল ভেঙে পড়া বাড়ি ও প্লাবিত এলাকার রাস্তা সংস্কারের দাবি নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন। বৃহস্পতিবার বেলায় ওই বিক্ষোভের জেরে পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের বাদশাহী রোডে কিছু সময়ের জন্যে থমকে যায় যানবাহন চলাচল। খবর পেয়ে ভাতার থানার পুলিশ ও স্থানীয় পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ঘটনাস্থলে পৌঁছন। তাঁরা ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে অবরোধ মুক্ত হয় গুরুত্বপূর্ণ ওই রাস্তা।


‘ইয়াসের’ প্রভাবে মঙ্গলবার রাত থেকে রাজ্য জুড়ে শুরু হয় ঝড়-বৃষ্টি। ভাতার ব্লকেও তার প্রভাব পড়ে। এদিন সকাল ১০ টা পর্যন্ত ভাতারে চলে বৃষ্টিপাত। এর মধ্যে স্থানীয় মুরাতিপুরের বাসিন্দারা দাবি করেন, ঝড়-বৃষ্টির জেরে ভাতার ব্লকে ৫০টির বেশি কাঁচা বাড়ির ক্ষতি হয়েছে। তার মধ্যে মুরাতিপুরের ফকিরডাঙা পাড়ায় ভেঙে পড়েছে তিনটি বাড়ি। এছাড়াও সম্পূর্ণ ভাবে ভেঙে না পড়লেও এই এলাকার আরও তিনটি বাড়ির অনেকটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জলমগ্ন হয়ে রয়েছে ফকিরডাঙা পাড়ায় দু’টি প্রধান রাস্তাও। সেই কারণে বাসিন্দাদের যাতায়াতেও সমস্যা হচ্ছে। এই সব সমস্যা নিয়ে মুরাতিপুর এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়ায়। তাঁরা দুর্যোগের মধ্যেই ভেঙে পড়া বাড়ি ও রাস্তা সংস্কারের দাবিতে বাদশাহী রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।
নিত্যানন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান জুলফিকার আলি বাড়ি ভেঙে যাওয়া তিন পরিবারকে আপাতত অস্থায়ী আশ্রয় শিবিরে চলে যাওয়ার কথা বলেন। পাশাপাশি তিনি ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি যত দ্রুত সম্ভব মেরামতির আশ্বাস দেন। এছাড়া রাস্তা সংস্কার নিয়েও বাসিন্দাদের আশ্বস্ত করেন। এর পরেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top