বীরভূমের ব্যবসায়ী ও তাঁর গাড়ির চালককে অপহরণ করে খুন, ডানকুনি থেকে ধৃত ৩

Birbhum-Dankuni-Murder.jpg

ধৃতদের নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান
টাকা হাতানোর জন্য এক ব্যবসায়ী ও তাঁর গাড়ির চালককে অপহরণ করে খুনের (Murder) অভিযোগ উঠল। অপহৃতরা হলেন শামিম খান (২১) ও বরুণ মুর্মু (২৬)। ব্যবসায়ী শামিমের বাড়ি বীরভূম (Birbhum) জেলার ইলামবাজার থানার ভগবতীবাজারে। আর তাঁর পিকআপ ভ্যানের চালক বরুণের বাড়ি একই থানা এলাকার নোলার গ্রামে। ঘটনার তদন্তে নেমে তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
ব্যবসার জন্য ফাস্ট ফুড সামগ্রী কিনতে গত ৪ অগস্ট ইলামবাজার থেকে কলকাতা যাওয়ার পথে শামিম ও বরুণকে অপহরণ করা হয়। এর মধ্যে পরের দিন পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর (Jamalpur) থানার নবগ্রাম এলাকায় ২ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে একটি ধাবার সামনে থেকে একটি পিকআপ ভ্যান উদ্ধার হয়। গাড়ির চালকের হদিস না পেয়ে জামালপুর (Jamalpur) থানার পুলিশ একটি মামলা রুজু করে পিকআপ ভ্যানটি বাজেয়াপ্ত করে। সেই গাড়ির নম্বরের সূত্র ধরে বীরভূমের (Birbhum) ব্যবসায়ী শামিমের হদিস পায় পুলিশ। এদিকে কয়েক দিন ধরে শামিমের কোনও খোঁজ না পেয়ে ৮ অগস্ট জামালপুর (Jamalpur) থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেন পরিবারের লোকজন। তার ভিত্তিতে তদন্তে নেমে জামালপুর থানার পুলিশ হুগলির ডানকুনি (Dankuni) থানার সাহায্য নিয়ে বুধবার রাতে তিন জনকে আটক করে। বৃহস্পতিবার তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের নাম আকতার আলি মল্লিক, শেখ শামিম ওরফে বাবু ওরফে গোলতাবলে ও করিম শেখ ওরফে কালো। ধৃত তিন জনই ডানকুনি থানার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা।
এদিকে ডানকুনি (Dankuni) থানায় বসিয়ে বুধবার গভীর রাত পর্যন্ত পুলিশ ধৃত তিন জনকে ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ চালায়। তাতেই উঠে আসে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিশ সূত্রে খবর, জেরায় ধৃতরা অপহরণ করে খুনের (Murder) কথা কবুল করেছে। জেরায় তারা জানায়, অপহরণ করার পর দু’জনের দেহ ডানকুনি (Dankuni) খালে ফেলে দেওয়া হয়েছে। এবং পুলিশের নজর ঘোরাতে তারা পিকআপ ভ্যানটি জামালপুরে (Jamalpur) নবগ্রামে জাতীয় সড়কের ধারে থাকা একটি ধাবার সামনে দাঁড় করিয়ে রেখে পালায়।
এমন তথ্য পাওয়ার পর ব্যবসায়ী ও পিকআপ ভ্যানের চালকের দেহ উদ্ধারের জন্য ধৃতদের সঙ্গে নিয়ে পুলিশ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ডানকুনি খালে তল্লাশি শুরু করে। জেসিবি মেশিনের ব্যবহারের পাশাপাশি ডুবুরি নামানো হয়। তবে এদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত দেহ দু’টির কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি বলে জানা গিয়েছে। খুনের (Murder) ঘটনা আড়াল করতে ধৃতরা বিভ্রান্ত করছে কি না, সেই বিষয়টিও পুলিশ খতিয়ে দেখছে।
ব্যবসায়ী শামিমের আত্মীয় জামির খান এদিন বলেন, ‘ব্যবসার বেশ কিছু টাকা শামিমের কাছে ছিল। ওই টাকা হাতানোর জন্যই দু’জনকে অপহরণ করে খুন (Murder) করা হয়েছে।’ এসডিপিও আমিনুল ইসলাম (বর্ধমান সদর দক্ষিণ) এদিন বলেন, ‘পিকআপ ভ্যানটি পাঁচ অগস্ট নবগ্রামে ২ নম্বর জাতীয় সড়কে পাওয়া যায়। ওই গড়িতে থাকা ব্যবসায়ী শামিম শেখ ও গাড়ির চালক বরুণ মুর্মুকে অপহরণের ঘটনা নিয়ে তাঁদের পরিবার ৮ অগস্ট জামালপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে। পিকআপ ভ্যানের সূত্র ধরে তদন্ত চালিয়ে অপহরণের ঘটনায় ডানকুনির তিন জনকে ধরা হয়েছে। জেরায় তারা টাকা হাতানোর জন্য দু’জনকে খুন করে দেহ ডানকুনির (Dankuni) সেচখালে ফেলে দেওয়ার কথা জানিয়েছে। ধৃতদের আরও জেরা করা হবে।’

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top