মহিলা তৃণমূলকর্মীকে মারধরের অভিযোগে গ্রেপ্তার দুই বিজেপিকর্মী

TMC-WORKER.jpg

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: মহিলা তৃণমূলকর্মীকে মারধরের অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেন বিজেপির দুই কর্মী। ধৃতদের নাম প্রদীপ রায় ও শুভ রায়। বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের মেমারি পুরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের রায়পাড়ায়। মেমারি থানার পুলিশ সোমবার রাতে বাড়ি থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করে। মঙ্গলবার ধৃতদের বর্ধমান আদালতে পেশ করা হলে সিজেএম জামিন মঞ্জুর করেন।

আক্রান্ত তৃণমূলকর্মীর নাম  ঝরনা অধিকারী। মেমারি পুরসভার রায়পাড়ায় তাঁর বাড়ি। তাঁর অভিযোগ, এলাকার প্রাইমারি স্কুলের পড়ুয়াদের মিড-ডে মিলের চাল-ডাল দেওয়ার কথা সোমবার তিনি বাড়ি বাড়ি বলতে বেরিয়েছিলেন। একই সঙ্গে ওইদিন বিকালে তৃণমূলের মিটিংয়ের কথাও তিনি এলাকার ওইসব বাড়িগুলিতে গিয়ে জানান। তিনি বাড়ি বাড়ি প্রচার করার সময়ে এলাকার  বিজেপির কয়েক জন তাঁকে গালিগালাজ করেন। এমনকী প্রতিবাদ করায় রড, লাঠি দিয়ে তাঁকে মারধরও করে। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁকে উদ্ধার করে মেমারি হাসপাতালে নিয়ে যান। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে তিনি হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। মেমারি শহর তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সৌরভ সাঁতরা এ বিষয়ে বলেন, ‘ধৃত দু’জনই সক্রিয় বিজেপি কর্মী। ভোটে মেমারিতে বিজেপির ভরাডুবি হওয়ায় ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কর্মীরা ক্ষোভে এলাকা অশান্ত করতে চাইছে। সেই কারণেই মারধর করা হয়েছে আমাদের দলের মহিলাকর্মীকে।’ সৌরভ এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেন, বিজেপি কর্মীদের হিংসার মোকাবিয় এ বার তাঁরা রাজনৈতিক ভাবেই পথে নামবেন। যদিও ঘটনার কথা অস্বীকার করেছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top