হাফপ্যান্ট পরে সাবওয়ে ‘উদ্বোধন’, বিতর্কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল

Babul-Supriyo.jpg

হাফপ্যান্ট পরে উপস্থিত বাবুল সুপ্রিয়

আসানসোল: আসানসোল রেল ডিভিশনে একটি সাবওয়ে তৈরির কাজ চলছিল বেশ কিছুদিন ধরে। হাফপ্যান্ট পরে বাইক চালিয়ে তা ‘উদ্বোধন’ করে বিতর্কে জড়ালেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। যদিও বাবুলের দাবি, ঘটনার ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে।
করোনা আবহে সেই অর্থে ওই সাবওয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আয়োজন করেনি রেল। বুধবার বেলার দিকে বাইক নিয়ে সাবওয়েতে ঢুকে পড়েন সাংসদ তথা মন্ত্রী বাবুল। তাতেই হয়ে যায় উদ্বোধন। কিন্তু সেই সময়ে তাঁর পরনে ছিল কালো টি-শার্ট ও হাফ প্যান্ট। যা নিয়ে দেখা দিয়েছে বিতর্ক।
সাবওয়েটি আসানসোল রেলপাড়া ও শহরকে যুক্ত করবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীনই তা নির্মাণের জন্য সরকারি প্রক্রিয়া শুরু হয় বলে দাবি আসানসোলের তৎকালীন মেয়র তথা রানিগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তাঁর বক্তব্য, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই সাবওয়ে তৈরির ব্যবস্থা করেছিলেন। তাঁরই তৎপরতায় সাবওয়ে নির্মাণে পদক্ষেপ করেছিল রেল মন্ত্রক। অথচ বাবুল সুপ্রিয় এখন হাফপ্যান্ট পরে বালখিল্য করে বেড়াচ্ছেন।’
বুধবার বাবুল তাঁর মহীশিলা কলোনির বাড়ি থেকে বাইকে আসানসোল ডুরান্ড রেল কলোনির কাছে পৌঁছন। সেখানে রেল লাইনের নীচে গাড়ি চলাচলের জন্য তৈরি হয়েছে এই সাবওয়ে। সাধারণ মানুষের বহু দিনের দাবি ছিল এমন একটি ভূগর্ভস্থ পথের। তা পাওয়ায় এ দিন ছিল খুশির হাওয়া।
তবে বিতর্ক প্রসঙ্গে বাবুল বলেন, ‘রাজ্য সরকারকে বাদ দিয়ে উনি (তাপস) ব্যক্তিগত উদ্যোগে আসানসোলের জন্য কী কী করেছেন, তার সঙ্গে আমার কাজের তুলনা করলেই স্পষ্ট হবে, আসানসোলের মানুষের সঙ্গে বালখিল্য করছেন কে।’
সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন — কোনও উদ্বোধন অনুষ্ঠান হয়নি। ফিতে কাটিনি। আন্ডারপাসের কাজ দেখতে গিয়েছিলাম। আসানসোলের ডিআরএম-সহ বেশ ক’জন আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করেছি। কথা বলেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top