সাদা রঙের সাপ! বিরল প্রজাতির বিষধর উদ্ধার করলেন বনকর্মীরা

IMG-20210603-WA0011.jpg

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: সাদা রঙের বিরল প্রজাতির একটি বিষধর সাপ উদ্ধার করলেন বর্ধমানের বনদপ্তরের কর্মীরা। বুধবার রাতে বর্ধমান-১ ব্লকের বেলকাশ পঞ্চায়েতের মিলিকপাড়ার কয়েকজন বাসিন্দা ওই সাপটিকে গ্রামের রাস্তা দিয়ে যেতে দেখেন। তবে সাদা রঙের সাপ দেখে তাঁরা হকচকিয়ে যান। এর মধ্যে সাপটি রাস্তার পাশে এক ব্যক্তির বাড়ি লাগোয়া দেওয়ালের ফাটলে ঢুকে পড়ে। সাপটিকে না মেরে মিলিকপাড়ার বাসিন্দারা বর্ধমানে বনদপ্তরে খবর দেন। রাতেই বনদপ্তরের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাপটিকে উদ্ধার করেন।
মিলিকপাড়ার বাসিন্দারা জানান, সাদা সাপ অত্যন্ত বিষাক্ত বলে তাঁরা শুনেছেন। ফলে এমন বিষাক্ত সাপ গ্রামে আর রয়েছে কি না, সেটা ভেবেই তাঁরা আতঙ্কে রয়েছেন। বনদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, এমন ধরনের সাপ বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও বীরভূমের জঙ্গলে কদাচিৎ দেখা যায়। এই সাপের ভীষণ বিষ। প্রাণী বিষেজ্ঞদের বক্তব্য, ত্বকের রং নির্ধারণকারী জিনের অস্বাভিক ঘাটতি থাকলে সাপের গায়ের রং এমন হয়ে যায়। সাধারণত কয়েক হাজারে এমন ঘটনা একটি ঘটে। এই সাপের ইংরেজি নাম ‘অ্যালবিনো কমন ক্রেইট’ (Albino Common Krait)। এই সাপ কোনও মানুষকে কামড়ালে তার বিষ মানুষের স্নায়ুতন্ত্রকে অকেজো করে দেয়।
বর্ধমানের বন আধিকারিক নিশা গোস্বামী বলেন, ‘মিলিকপাড়া থেকে যে সাপটি উদ্ধার করা হয়েছে সেটি অত্যন্ত বিষধর। সাপটি তিন থেকে সাড়ে তিন ফুট লম্বা হবে। এই ধরনের সাপ সাধারণত বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূমের জঙ্গলে দেখাযায়।’ সাপটিকে জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top