পার্টি অফিসে রাতভর উড়ল জাতীয় পতাকা, প্রথমবারের উদ্যোগেই বিতর্কে সিপিএম

National-Flag-Khandaghosh-Cpm.jpg

রাত পেরিয়ে সোমবারও পার্টি অফিসের সামনে উড়ছে জাতীয় পতাকা

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান
দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপনে কোনও দিন আগ্রহ দেখায়নি সিপিএম। স্বাধীনতার ৭৪ বছর অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পর রবিবার, ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসে সিপিএম (Cpm) নেতৃত্ব তাঁদের পার্টি অফিসগুলিতে দেশের জাতীয় পতাকা (National Flag) উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নেন। আলিমুদ্দিন স্ট্রিট-সহ অন্যান্য অফিসের মতো পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষের (Khandaghosh) উখরিদের কমরেড বিনয় চৌধুরী স্মৃতি ভবনেও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। কিন্তু প্রথমবার পতাকা উত্তোলন করতে গিয়েই বিপত্তি। জাতীয় পতাকার (National Flag) অবমাননা হয়েছে বলে নিন্দায় সরব হয়েছেন সাধারণ মানুষ থেকে তৃণমূল ও বিজেপি নেতারা।
বাম আমলে ২০০৫ সালে খণ্ডঘোষে (Khandaghosh) সিপিএমের (Cpm) উখরিদ শাখা কার্যালয়টি গড়ে তোলা হয়। রাজ্যের প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রয়াত সিপিএম (Cpm) নেতা বিনয় চৌধুরীর স্মরণে ওই পার্টি অফিসটির নাম দেওয়া হয় ‘কমরেড বিনয় চৌধুরী স্মৃতি ভবন’। এলাকার মানুষ সারা বছর ওই পার্টি অফিসে সিপিএমের লাল পাতাকাই উড়তে দেখে এসেছেন। এই প্রথম স্বাধীনতা দিবসে স্থানীয় সিপিএম নেতারা বিনয় চৌধুরী স্মৃতি ভবনে দেশের জাতীয় পতাকা (National Flag) উত্তোলন করেন। তার পর থেকে সারা রাত পেরিয়ে যায়। সোমবার বিকালেও একই ভাবে উখরিদের ওই পার্টি অফিসে দেশের জাতীয় পতাকা উড়তে দেখে এলাকার মানুষজন হতাবাক হয়ে যান। দেশের জাতীয় পতাকার এমন অবমাননা দেখে তাঁরা ক্ষোভ প্রকাশও করেন।
উখরিদের বাসিন্দা শেখ হাবিবুর রহমান ও গিয়াসউদ্দিন খান বলেন, ‘উখরিদের সিপিএম (Cpm) নেতারা যে দেশের জাতীয় পতাকার প্রতি আদৌ শ্রদ্ধাশীল নন তা তাঁরা নিজেরাই প্রমাণ করে দিয়েছেন। সূর্যাস্তের আগেই জাতীয় পতাকা (National Flag) নামিয়ে রাখাতে হয় সেটা সকলেই জানেন। অথচ সিপিএম নেতাদের সে দিকে খেয়াল নেই। দেশের জাতীয় পতাকার প্রতি এমন অবমাননা এক কথায় নজিরবিহীন।’
খণ্ডঘোষ (Khandaghosh) ব্লক তৃণমূলের সভাপতি অপার্থিব ইসলাম বলেন, ‘সিপিএম নেতারা দেশের স্বাধীতাকে কোনও দিনই মান্যতা দেননি। তাই দেশের জাতীয় পতাকাকে ওরা মান্যতা দেবে এটা কেউ বিশ্বাস করেন না। রাজ্যে শূন্য হয়ে যাওয়ার পর সিপিএম নেতারা এ বছর লোক দেখানো ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস পালন করেছেন। তাই জাতীয় পতাকার অবমাননা সিপিএম নেতারা যে করবেন সেটাই তাঁদের কাছে প্রত্যাশিত।’
বিজেপির খণ্ডঘোষ (Khandaghosh) বিধানসভার পর্যবেক্ষক তথা জেলা সহ সভাপতি বিজন মণ্ডল এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘সিপিএম নেতারা এতদিন বলে এসেছেন ইয়ে আজাদি ঝুটা হ্যায়। বাস্তব অর্থে এতকাল সিপিএম দেশের স্বাধীনতাকে মানেনি। এখনও মনেপ্রাণে মানে না। রাজ্যে শূন্য হয়ে যাবার পর ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য এ বছর সিপিএম নেতারা ওঁদের পার্টি অফিসে লোক দেখানো জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছেন। তাঁদের না আছে জাতীয়তা বোধ, না আছে জাতীয় পতাকার প্রতি শ্রদ্ধা। তাই দেশের জাতীয় পতাকা নিয়ে সিপিএম নেতাদের কাছ থেকে ভালো কিছু আশা করা যায় না।’
খণ্ডঘোষের বাসিন্দা সিপিআইএম জেলা কমিটির সদস্য বিনোদ ঘোষ ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘এমনটা যদি হয়ে থাকে তবে তা কোনও ভাবেই কাঙ্খিত নয়। যাঁরা উখরিদের পার্টি অফিসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছিলেন, তাঁদেরই দায়িত্ব দেশের জাতীয় পতাকার মর্যাদা রক্ষা করা। দেশের জাতীয় পতাকার অবমাননা দল অনুমোদন করে না। কেন এমনটা হল খোঁজ নিয়ে দেখছি।’

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top