চাষিদের কাছ থেকে কেনা ধান আত্মসাতের অভিযোগে রাইস মিলের বিরুদ্ধে এফআইআর

Polish_20210709_013709437.jpg

বর্ধমান: সরকারি সহায়ক মূল্যে চাষিদের কাছ থেকে কেনা ধান আত্মসাতের অভিযোগ উঠল রাইস মিলের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় সংশ্লিষ্ট রাইস মিলের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহ দপ্তর। বুধবার দপ্তরের পূর্ব বর্ধমান জেলা ম্যানেজার রাজু মুখোপাধ্যায় গলসির পারাজের একটি রাইস মিলের বিরুদ্ধে গলসি থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন। তার ভিত্তিতে পুলিশ প্রতারণা ও সরকারি সম্পত্তি আত্মসাতের ধারায় মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে। ঘটনা জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে গলসির কৃষক মহলে।
অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহ দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, গলসির পারাজের উত্তরপাড়ার সমবায় কৃষি উন্নয়ন সমিতির মাধ্যমে চাষিদের কাছ থেকে ধান কেনে সরকার। সেই ধান পারাজের ওই রাইস মিলটিতে জমা দেওয়া হয়। ২০১৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর থেকে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সংগৃহীত ১২০৬.৫৮২ মেট্রিক টন ধান সরকার ওই মিলটিকে দেয়। সেই ধানের পরিবর্তে ৮২০.৫৭৬ মেট্রিক টন চাল সরকারকে দেওয়ার কথা ছিল রাইস মিল কর্তৃপক্ষের। অভিযোগ, ধান নিলেও শর্ত অনুযায়ী রাইস মিল কর্তৃপক্ষ সরকারকে সেই চাল আজও দেননি। এমনকী চাষিদের থেকে কেনা ওই ধানও ফেরত দেওয়া হয়নি।
এই পরিস্থিতিতে চাল না দেওয়ার কারণ দর্শানোর জন্যে সরকারের তরফে পারাজের ওই রাইস মিল কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার চিঠি পাঠায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর। অভিযোগ, তার পরেও রাইস মিল কর্তৃপক্ষ কোনও হেলদোলও দেখাননি, চালও দেননি। রাইস মিল কর্তৃপক্ষের এমন কাজ কারবারের পরিপ্রেক্ষিতে দপ্তরের তরফে এফআইআর দায়েরের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় । সেই অনুযায়ী অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহ দপ্তর বুধবার এফআইআর দায়ের করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top