বুধবার আছড়ে পড়বে ‘ইয়াস’, সব রাজ্যের সঙ্গে প্রস্তুতি বৈঠক ক্যাবিনেট সচিবের

2A6A44A6-7BB8-4F0B-AAF5-11C00BF78DF3.jpeg

Onlooker desk: পশ্চিমে ঘূর্ণিঝড় তউকতির রেশ না মেলাতেই দেশের পূর্বভাগে ওডিশা ও পশ্চিমবঙ্গে আছড়ে পড়েতে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস। আগামী বুধবার, ২৬ তারিখ দুই রাজ্যের উপর দিয়ে ইয়াসের বয়ে যাওয়ার কথা বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। এবং তা অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে চলেছে।
বঙ্গোপসাগরের এই ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় কেন্দ্র ও রাজ্যগুলি কতখানি প্রস্তুত, তা আলোচনার জন্য আজ বৈঠকে বসে ক্যাবিনেট সেক্রেটারি রাজীব গৌবার নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কমিটি (এনসিএমসি)। আবাসন, বিদ্যুৎ, টেলিকম-সহ কেন্দ্রীয় বিভিন্ন মন্ত্রকের সচিবরা ছাড়াও পশ্চিমবঙ্গ-ওডিশা-অন্ধ্রপ্রদেশ-তামিলনাড়ু-আন্দামান ও নিকোবর এবং পুদুচেরির মুখ্যসচিব ও সংশ্লিষ্ট অফিসাররা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। আবহাওয়া দপ্তরের ডিরেক্টর জেনারেল জানান, আগামী ২৬ মে সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গ ও ওডিশায় আছড়ে পড়েবে ইয়াস। ঘণ্টায় ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। উপকূলীয় এলাকাগুলিতে প্রভাব পড়বে সবচেয়ে বেশি।
যে সব রাজ্য প্রভাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা, সেগুলির মুখ্যসচিবরা কমিটিকে জানান, গূর্ণিঝড় মোকাবিলায় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নিচু এলাকার বাসিন্দাদের অন্যত্র সরানো হচ্ছে। খাদ্যশস্য, পানীয় জল এবং অন্যান্য জরুরি সামগ্রীর ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। বিদ্যুৎ, টেলিকমিউনিকেশন যাতে নিরবচ্ছিন্ন থাকে, নজর দেওয়া হচ্ছে সে দিকেও।
জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৬৫টি দলকে নিয়োগ করা হয়েছে। আরও ২০টিকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। সেনা, নৌবাহিনী, উপকূলরক্ষী বাহিনীও সক্রিয় থাকবে। তা ছাড়া এই কোভিড বিপর্যয়ের মধ্যে ঘূর্ণিঝড় যাতে চিকিৎসায় প্রভাব না-ফেলে, সেটা নিশ্চিত করতে হাসপাতাল, কোভিড কেয়ার কেন্দ্রগুলিকে সচল রাখা এবং নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেনের জোগানের বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে রাজ্যগুলি জানিয়েছে।
সময়মতো সব ব্যবস্থা নিয়ে ক্ষয়ক্ষতি যাতে ন্যূনতম করা যায়, তার উপরে জোর দিয়েছেন ক্যাবিনেট সচিবও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top