জাতীয় সড়কের ধারে উদ্ধার হাত-পা বাঁধা মৃতদেহ, চাঞ্চল্য

MURDER-AUSHGRAM.jpg

মৃতদেহ উদ্ধার করছে পুলিশ

বর্ধমান: হাত-পা বাঁধা অবস্থায় জাতীয় সড়কের ধারেই পড়েছিল অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তির দেহ। এই ঘটনা জানাজানি হতেই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের বড়াচৌমাথা এলাকার বাসিন্দার মধ্যে। খবর পেয়ে আউশগ্রামের গুসকরা ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেহটি উদ্ধার করে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, দুষ্কৃতীরা অন্য কোথাও ওই ব্যক্তিকে খুন করে দেহটি জাতীয় সড়কের ধারে ফেলে পালিয়েছে। মৃতের পরিচয় জানার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের বয়স আনুমানিক ৫০ বছর। পরনে রয়েছে সাদা পাঞ্জাবি ও সাদা পাজামা। জাতীয় সড়কের ধারে নয়ানজুলির কাছে উবু হয়ে দেহটি পড়ে ছিল। তা দেখে প্রথমে এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়, করোনায় মৃত্যু হওয়া কোনও ব্যক্তির দেহ ফেলে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি লোকমুখে প্রচার হয়ে যেতেই এলাকার কেউ মৃতদেহের ধারে কাছে ঘেঁষ ছিলেন না। তবে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখে মৃতের হাত-পা বাঁধা। তাঁর মুখে ও শরীরের বেশ কিছু জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে এলাকার বাসিন্দারা তাঁকে শনাক্ত করতে পারেননি। সেখান থেকেই পুলিশের অনুমান, ওই ব্যক্তিকে বাইরে কোথাও খুন করে দেহ এখানে ফেলে গিয়েছে দুষ্কৃতীরা। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে এটি খুনের ঘটনা বলেই মনে করা হচ্ছে। বুধবার দেহটি ময়নাতদন্তে পাঠানো হবে। রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top