টিকা না পেলে ওষুধের দোকান বন্ধের হুমকি মালিক সংগঠনের

C5E9CAFB-33C7-47E1-B12B-94B13C14B6FE.jpeg

বর্ধমান: কোভিডের টিকার দাবিতে বার সরব  বেঙ্গল কেমিস্টস অ্যাণ্ড ড্রাগগিস্টস অ্যাসোসিয়েশন।টিকার দাবিতে বুধবার পুরোদস্তুর আন্দোলনে নেমে পড়েছেন অ্যাসোসিয়েশনের অন্তর্গত বর্ধমান শহরেরওষুধ ব্যবসায়ীরা। অবিলম্বে টিকা না পেলে ওষুধের দোকান বন্ধ করে রাখারও হুমকি দেন তাঁরা

রাজ্যজুড়ে সংক্রমণ বাড়ছে। পূর্ব বর্ধমানেও পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। তার মধ্যে ভ্যাকসিনেশন নিয়ে  অচলাবস্থা কাটছে না জেলায়। কয়েকদিন ধরে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজসহ অনেক হাসপাতালেভ্যাকসিন কার্যত থমকে রয়েছে। উইশ পরিস্থিতিতে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে টিকা চান ওষুধ ব্যবসায়ীরা।কারণ কড়াকড়িতেও তাঁদের ছাড় নেই। তা ছাড়া প্রচুর মানুষের সঙ্গে নিত্য যোগাযোগ তাঁদের।

অ্যাসোসিয়েশনের পূর্ব বর্ধমান জেলার প্রশাসনিক সম্পাদক গঙ্গাধর খান্ডেওয়াল বুধবার বলেন, গত ১৮মে একটি তালিকা প্রকাশ করেছে রাজ্য সরকার। সেখানে পেট্রল পাম্প কর্মী, হকার, পরিবহণ কর্মী, যৌনকর্মীদের নাম থাকলেও ওষুধ ব্যবসায়ী ওষুধ দোকানের কর্মীরা নেই। অথচ জীবন বাজি রেখেওষুধ  ব্যবসায়ী ওষুধের দোকানের কর্মচারীরা  প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের সাথে মেলামেশাকরছেন। ইতিমধ্যে  কল্যাণী মার্কেটের বেশ কয়েকজন ওষুধ ব্যবসায়ী কর্মচারী করোনায় আক্রান্তহয়েছেন। মারাও গিয়েছেন কয়েকজন।

ভ্যাকসিনের জন্য জেলাশাসক, জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকসহ জেলা রাজ্য আধিকারিকদের কাছেআবেদন জানান তাঁরা। কিন্তু কোনও কাজ হয়নি বলে অভিযোগ। গঙ্গাধর বলেন, ‘ওষুধ ব্যবসায়ী ওষুধের দোকানের কর্মচারীদের দ্রুত টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা নাহলে দোকান বন্ধ রাখতে তারা বাধ্য হব।

অন্যদিকে সংগঠনের সেক্রেটারি মৃণাল তা বলেন,  পূর্ব বর্ধমান জেলায় কয়েক হাজার পাইকারি খুচরো ওষুধের দোকান রয়েছে।ওষুধ ব্যবসায়ীরাও  প্রথম সারির করোনা যোদ্ধার মধ্যে পড়েন। অথচভ্যাকসিন নাদেওয়ায় তাঁরা  আতঙ্কিত। টিকা না পেলে এরপর দোকান বন্ধ রাখা ছাড়া উপায় থাকবেনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top